Ticker

6/recent/ticker-posts

Header Ads Widget

Responsive Advertisement

বাংলাদেশ কিন্ডারগার্টেন এসোসিয়েশনের প্রতীকী অনশন

রহমতুল্লাহ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধিঃ ১৩জুন সরকার ঘোষিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার আদেশ বহাল রাখার দাবিতে বাংলাদেশ কিন্ডারগার্টেন এসোসিয়েশনের উদ্যোগে আজ জাতীয় প্রেসক্লাব সহ দেশের বিভিন্ন স্থানে প্রতীকী অনশন কর্মসূচি পালিত হয়। ঢাকা জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এসোসিয়েশনের কেন্দ্রীয় কমিটির উদ্যোগে সংগঠনের চেয়ারম্যান মিসেস মনোয়ারা ভূঁইয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত অনুষ্ঠানের লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন সংগঠনের কেন্দ্রীয় মহাসচিব মিজানুর রহমান সরকার। মহাসচিব তার লিখিত বক্তব্যে বলেন, অনেক পরিচালক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ করতে বাধ্য হয়েছেন। অনেক শিক্ষক   চরম মানবেতর জীবনযাপন করছেন। কেউবা হকারি কেউবা কাঁচা তরকারি বিক্রি করে জীবিকা নির্বাহ করছে। শিক্ষকদের পেটে ভাত নাই। সন্তান কিছু আবদার করলে দিতে পারো না। বাবা হিসেবে সন্তানের আবদার রক্ষা করতে না পারা যে কতটা বেদনাময়ী তা শুধু ভুক্তভোগীই  জানেন। তিনি প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশ্যে বলেন, আপনি আমাদের অভিভাবক, সন্তান যখন বিপদে পড়ি মা-বাবার কাছে সাহায্য চাই। আমরা আজ আমাদের অস্তিত্বের স্বার্থে আপনার সহযোগিতা চাই। স্কুলগুলো নিশ্চিহ্ন হয়ে যাক দেশের অভিভাবক হিসেবে অবশ্যই আপনি যা চাইবেন না। কিন্তু আজ আমরা নিরুপায় হয়ে রাস্তায় দাঁড়াতে বাধ্য হলাম। আপনার কাছে আবেদন জানাচ্ছি, আপনি আমাদের বাঁচান। আমরা মাসে মাসে আপনার কাছে বেতন চাইনা। আমাদের স্কুল সরকারিকরণ করা হোক সেটাও আমাদের দাবি নয়। আমরা চাই চলতি বাজেট অধিবেশনে কিন্ডারগার্টেন গুলোর টিকিয়ে রাখার স্বার্থে বাজেটে আর্থিক বরাদ্দ নিশ্চিত করা।

সভাপতির বক্তব্যে মনোয়ারা ভূঁইয়া বলেন, শিক্ষা গ্রহণ করতে না পারায় একটি জাতী বিকারগ্রস্ত হয়ে পড়েছে। যদি এদেরকে সময়মতো সঠিক ভাবে শিক্ষিত না করা যায়, তবে জাতিকে তার জন্য চরম মূল্য দিতে হবে। তিনি অবিলম্বে কিন্ডারগার্ডেন স্কুল সহ সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রীর প্রতি উদাত্ত আহ্বান জানান।

উক্ত বক্তব্যে তিনি তিনটি দাবি পেশ করেন, দাবিগুলো হচ্ছে: ১) বাজেটে ক্ষতিগ্রস্থ কিন্ডারগার্ডেন গুলোর পুনর্বাসনে আর্থিক বরাদ্দের ব্যবস্থা করতে হবে। ২) সরকার ঘোষিত ১৩জুন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার ঘোষণা বহাল রাখা ।৩) কমপক্ষে সপ্তাহে একদিন এক একটি শ্রেণীর কার্যক্রম পরিচালনার অনুমতি দিতে হবে।

সংগঠনের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সম্পাদক আবুল খায়ের এর উপস্থাপনায় উক্ত অনুষ্ঠান কর্মসূচিতে বক্তব্য রাখেন ভাইস চেয়ারম্যান ডাঃ আবদুল মাজেদ, যুগ্ম মহাসচিব। যুগ্ম মহাসচিব মোঃ ফারুক হোসেন। সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ হামিদুর  রহমান। শিশু ও মহিলা বিষয়ক সম্পাদক জেসমিন নাহার সহ আরো অনেকেই নানান দৃষ্টিভঙ্গি মূলক বক্তব্য প্রদান করবে ।


Post a Comment

0 Comments